1. nagorikkhobor@gmail.com : admi2017 :
  2. shobozcomilla2011@gmail.com : Nagorik Khobor Khobor : Nagorik Khobor Khobor
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুমিল্লায় মেয়র প্রার্থী সাক্কুর র‌য়ে‌ছে ২৪টি ফ্ল্যাটসহ অ‌ঢেল সম্পদ গণমাধ্যমকর্মী আইন প্রেস ফ্রিডমে চরম আঘাত সোনার দাম আকাশচুম্বী- প্রতি ভরির দাম ৮২ হাজার ৪৬৪ টাকা ইসির সংলাপে যাবে জাতীয় পার্টি জুনেই পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে মানুষ: কাদের খাদ্য সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বাড়াতে বাংলাদেশ প্রস্তুত: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী গণকমিশনের কোনও ভিত্তি নেই: আসাদুজ্জামান খান কামাল গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ-এর প্রথম উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক – সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব নানা আয়োজনে পুনাকের ঈদ পুনর্মিলনী অনু‌ষ্ঠিত রাজধানী‌তে জাল স্ট‌্যাম্প তৈ‌রি ও বি‌ক্রির অ‌ভি‌যো‌গে গ্রেফতার ৩

রোজায় গুনাহ মাফের আমল গুরুত্বপুর্ন

নাগ‌রিক খবর ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২২
  • ৯৫ বার পঠিত

গুনাহ থেকে বিরত থাকা যেমন ইবাদত তেমনি গুনাহ হয়ে গেলে তা থেকে মুক্তি চাওয়া ইবাদত। গুনাহ মুক্তির সেরা মৌসুম রমজান মাস। এ মাসে আল্লাহ তাআলা বান্দাকে গুনাহ থেকে মুক্তি দিয়ে থাকেন। রমজানে বিশেষ দুইটি ইবাদতে গুনাহ মুক্তির কথা বলেছেন বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রমজান মাসে গুনাহ থেকে মুক্তি লাভের দুইটি উপায় বর্ণনা করেছেন। এ দুইটি উপায় রমজানের গুরুত্বপূর্ণ বিশেষ ইবাদতও বটে। আর তাহলো-
১. রাতের বিশেষ নামাজ তারাবি আদায় করা।

২. রোজাদারকে ইফতার করানো।

তারাবি নামাজ

ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের নিয়তে তারাবি পড়লে আল্লাহ বান্দার বিগত জীবনের সব গুনাহ মাফ করে দেন মর্মে হাদিসে এসেছে-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রমজান মাসে তারাবি নামাজ পড়তে উৎসাহিত করতেন, তবে তিনি (সরাসরি) তাগিদ সহকারে আদেশ করতেন না; বরং তিনি এভাবে বলতেন-

‘যে ব্যক্তি পরিপূর্ণ ঈমানের সঙ্গে এবং সওয়াবের নিয়তে রমজান মাসে (রাতের) নামাজ (তারাবি) পড়ে, তার বিগত (জীবনের) সব (সগিরা) গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে। (মুসলিম, মিশকাত)

রোজাদারকে ইফতার করানো

তারাবি ছাড়া গুনাহ থেকে মুক্তি লাভে রমজানের বিশেষ ইবাদত হলো- অন্য রোজাদারকে ইফতার করানো। এ ব্যাপারে হাদিসে এসেছে-

‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, রমজান মাসে যে ব্যক্তি কোনো রোজাদারকে ইফতার করাবে, তার গুনাহগুলো মাফ হয়ে যাবে। সে দোজখ থেকে মুক্তি পাবে আর সে ওই রোজাদারের সমপরিমাণ সওয়াব পাবে, কিন্তু এতে রোজাদারের সওয়াব থেকে কিছুই কমানো হবে না।’

সুতরাং মুমিন মুসলমানের জন্য তারাবি নামাজ পড়ার পাশাপাশি অন্যকে ইফতার করনো অনেক ফজিলতপূর্ণ কাজ। এতে রোজাগারের গুনাহ মাফ হয়। নিজেদের মধ্যে নামাজ ও ত্যাগের অভ্যাস তৈরি হয়।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে গুনাহ থেকে ক্ষমা লাভে নিয়মিত তারাবি ও অন্যকে সাধ্যমতো ইফতার করানো কিংবা গরিব-অসহায়কে ইফতার সামগ্রী দান করার তাওফিক দান করুন। হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করে গুনাহ থেকে মুক্তি লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 nagorikkhobor.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com