1. nagorikkhobor@gmail.com : admi2017 :
  2. shobozcomilla2011@gmail.com : Nagorik Khobor Khobor : Nagorik Khobor Khobor
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৪৬ অপরাহ্ন

কু‌মিল্লা লালমাইয়ে নিকাহ্ রেজিষ্ট্রারের বিরুদ্ধে জাল দলিল সৃষ্টির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতি‌বেদক:
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২৮ বার পঠিত

ছাপকবলা দলিলের জাল সার্টিফাইড কপি সরবরাহ করে অন্যের জমি নিজের নামে নামজারি করতে গিয়ে ধরা খেলেন লালমাই উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক ও বাগমারা দক্ষিণ ইউনিয়নের নিকাহ রেজিষ্ট্রার আলহাজ্ব মাওলানা কাজী আবুল কাশেম মো: ফজলুল হক। তার বাড়ী উপজেলার বাগমারা দক্ষিণ ইউনিয়নের সিঁধুচী গ্রামে। তিনি বরুড়ার চালিতাতলী দারুছুন্নাহ আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষও।

রবিবার (৩০ আগস্ট) সকালে কুমিল্লার একটি রেস্টুরেন্টে সাংবাদিক সম্মেলন করে কাজী কাশেমের বিরুদ্ধে জালিয়াতির এই অভিযোগ উপস্থাপন করেন সিঁধুচী গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক মো: সেলিম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি উল্লেখ করেন, সিঁধুচী মৌজার সাবেক দাগ ৪৬০ ও হাল দাগ ৮১৪ এর এর ১১ শতক জমি সিএস (নং ৫৯) খতিয়ান, আরএস ( নং ৬৯) খতিয়ান, হাত নকশা (ডিপি-১৮৫) ও বিএস ( নং ২৭৭) খতিয়ান অনুযায়ী আমার দাদা মরহুম মহব্বত আলীর ওয়ারিশরা মালিক ও দখলদার রয়েছে। সেই অনুযায়ী উল্লেখিত জমিটি অদ্যবধি আমি চাষাবাদ করছি। অথচ আমার গ্রামের আবুল কাশেম মো: ফজলুল হক ২০১৯ সালের ১৯ ডিসেম্বর কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) বরাবর জমিটি তার নামে নামজারি করতে (নং ২৯১৯/১৯-২০) আবেদন করেন। আবেদনের সাথে তিনি নিজ নামীয় একটি দলিল ও একটি ভায়া দলিলের সার্টিফাইড কপি সংযুক্ত করেন। নোটিশ পেয়ে আমি ভুমি অফিসে যোগাযোগ করি এবং তার দাখিলকৃত ২টি দলিলের কপিসহ সকল কাগজপত্র সংগ্রহ করি। এরপর উল্লেখিত ২টি দলিলের হুবহু নকল সাবরেজিষ্ট্রি অফিস থেকে সংগ্রহ করি।

আমার সংগ্রহকৃত ৭৩৫৯ নং ছাপকবলা দলিলে (২০০৪ সালের ২২ এপ্রিল রেজিষ্ট্রিকৃত) দাতা-দীনেশ চন্দ্র সিংহ, গ্রহীতা-কাজী আবুল কাশেম মো: ফজলুল হক, সাবেক ৬৯নং খতিয়ান, ডিপি ১৮৫ নং খতিয়ান ও বিএস ২৬৪নং খতিয়ানের সাবেক ৪৬০ দাগ ও হাল ৮১৪ দাগের ১১শতক সম্পত্তি হস্তান্তরের কথা উল্লেখ রয়েছে। যদিও মনিন্দ্র চন্দ্র সিংহ’র মালিকানাধীন ২৬৪ নং খতিয়ানে ৮১৪ দাগের জমি নেই, রয়েছে ৮১৩, ১০২০ ও ১০২২ দাগের জমি।

কাজী কাশেমের দাখিলকৃত ৭৩৫৯ নং ছাপকবলা দলিলে, দাতা-দীনেশ চন্দ্র সিংহ, গ্রহীতা-কাজী আবুল কাশেম মো: ফজলুল হক, সাবেক ৬৯নং খতিয়ান, ডিপি ২৭৭ নং খতিয়ানের সাবেক ৪৬০ দাগ ও হাল ৮১৪ দাগের ১১শতক সম্পত্তি হস্তান্তরের কথা উল্লেখ রয়েছে। যদিও বিএস ২৭৭ নং খতিয়ানের সকল জমির মালিক মরহুম মহব্বত আলী গং।

কাজী কাশেম জালিয়াতি করে ৭৩৫৯ নং দলিলের সার্টিফাইড কপিতে মনিন্দ্র চন্দ্র সিংহ’র মালিকানাধীন বিএস ২৬৪ নং খতিয়ানের পরিবর্তে মরহুম মহব্বত আলীর মালিকানাধীন বিএস ২৭৭নং খতিয়ানের তথ্য উল্লেখ করেছেন।

এছাড়া আমার সংগ্রহকৃত ১৭৬৯৩ নং দলিলে (১৯৯৯ সালের ১৯ অক্টোবর রেজিষ্ট্রিকৃত) দাতা-মনিন্দ্র চন্দ্র সিংহ, গ্রহীতা-দীনেশ চন্দ্র সিংহ, বিএস ২৬৪ নং খতিয়ানের ১০২২ দাগের ১১ শতক জমি হস্তান্তরের কথা উল্লেখ রয়েছে। অথচ কাজী কাশেমের দাখিলকৃত ১৭৬৯৩ নং ছাপকবলা দলিলে দাতা-মহব্বত আলী, গ্রহীতা-দীনেশ চন্দ্র সিংহ, বিএস ২৭৭নং খতিয়ানের ৮১৪ দাগের ১১ শতক জমি হস্তান্তরের কথা উল্লেখ রয়েছে। মূলত কাজী কাশেম জালিয়াতি করে উক্ত দলিলের সার্টিফাইড কপিতে দাতার নাম মনিন্দ্র চন্দ্র সিংহ এর পরিবর্তে মহব্বত আলী এবং ২৬৪নং খতিয়ানের পরিবর্তে ২৭৭ নং খতিয়ানের জমির তথ্য উল্লেখ করেছেন।

গত ১৫ জানুয়ারি নামজারির আপত্তি জানিয়ে আমি সদর দক্ষিণ উপজেলার এসিল্যান্ড বরাবর একটি লিখিত আবেদন করি। আবেদনের সাথে আমার দাদা মরহুম মহব্বত আলীর নামীয় সিএস, আরএস ও বিএস খতিয়ান এবং কাশেমের দাখিলকৃত দলিলের সার্টিফাইড কপির হুবহু নকল সরবরাহ করি। এসব দেখে এসিল্যান্ড মহোদয় কাজী কাশেমের দাখিলকৃত দলিলগুলো কোয়ারি করতে সংশ্লিষ্ট সাবরেজিষ্ট্রারের নিকট প্রেরণ করেন। সাবরেজিষ্ট্রার কোয়ারি শেষে দলিল ২টিতে তথ্যগতভুল তথা জালিয়াতি রয়েছে মর্মে রিপোর্ট দেন। সেই অনুযায়ী এসিল্যান্ড অফিসে একাধিকবার শুনানী হলেও কাজী কাশেম অজ্ঞাত কারনে অনুপস্থিত থাকছেন। পাশাপাশি আমাকে আপত্তি প্রত্যাহারের জন্য সরাসরি ও বিভিন্ন লোকমারফত হুমকি ধমকি দিচ্ছেন। মিথ্যা মামলা ও গায়েবী হামলা করার হুমকি দিচ্ছেন।

কৃষক মো: সেলিম কুমিল্লা জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, লালমাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এসিল্যান্ড ও লালমাই থানার অফিসার ইনচার্জসহ সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানান, জাল দলিল সৃষ্টিকারী কাজী কাশেমের হুমকিতে তিনি নিরাপত্তাহীন রয়েছেন। যে কোন সময় তাকে জোরপূর্বক অপহরন করে ইচ্ছার বিরুদ্ধে এসিল্যান্ড অফিসে অনাপত্তি দেয়াতে পারে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক জাল দলিল সৃষ্টিকারী কাজী কাশেমের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রস্তুতির কথাও জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 nagorikkhobor.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com