1. nagorikkhobor@gmail.com : admi2017 :
  2. shobozcomilla2011@gmail.com : Nagorik Khobor Khobor : Nagorik Khobor Khobor
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৫৯ অপরাহ্ন

ক‌রোনায় বছরজু‌ড়ে পু‌লি‌শের ১৯ হাজার সদস‌্য আক্রান্ত : মৃত‌্যু ৮২

নিজস্ব প্রতি‌বেদক:
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪৪৮ বার পঠিত

করোনা মহামারীর সময় পুলিশ পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেকেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রবিবার (২৭ ডিসেম্বর) পর্যন্ত রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন ইউনিটে লকডাউনসহ বিভিন্ন সময় নিরাপত্তা দিতে গিয়ে ১৮ হাজার ৮শ ১১জন পুলিশের বিভিন্ন পদ মর্যাদার  কর্মকর্তা/সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত হ‌য়ে মৃতুবরণ করেছেন ৮২ জন পু‌লিশ সদস‌্য। এখনো চিকিৎসাধীন আছেন ৩১৭জন।

আক্রান্তদের মধ্যে অতিরিক্ত আইজি ৬জন, ডিআইজি ১০জন, অতিরিক্ত ডিআইজি ১৯জন, পুলিশ সুপার ১১২জন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ১৮৭জন, সহকারি পুলিশ সুপার ২২৮জন, ইন্সপেক্টর-৯৫৭জন, এসআই ৩০০৭, এএসআই ২৮৩৫, নায়েক ৫৫০জন, কনস্টেবল ৮ হাজার ৮শ২৩, অন্যান্য ২০৭৭জন। মোট ১৮,৮১১জন।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় লকডাউন, পরিস্কার পরিছন্ন ও সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে গিয়ে নিজেরা আক্রান্ত হয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের  মোট আক্রান্ত ৩১৭৮জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩১১১জন। মৃত্যুবরণ করেছেন ২৫জন। এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন  ৪২জন।

আক্রান্তদের মধ্যে যুগ্ম কমিশনার ৩জন, উপ-পুলিশ কমিশনার ১৬জন, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশার ৫০জন, সহকারি পুলিশ কমিশনার ২৯জন, ইন্সপেক্টর ১৮০জন, এসআই ৫৮৮জন, এএসআই ৫০৫জন, নায়েক ‘১০৭ জন, কনস্টেবল ১,৫৫৩জন ও অন্যান্য ১৪৭জন। মোট ৩ হাজার ১শ ৭৮জন।

করোনা কালে পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যরা অনেক মানবিক আচরণ করেছেন। তারা আক্রান্তদের সহায়তা থেকে শুরু করে হাসপাতাল পর্যন্ত  নিয়ে সেবা দিয়েছে। অনেক আক্রান্ত পরিবারের ঘরে খাওয়ার পৌছে দিয়েছেন। এ বছর করোনা কালে এমন নজির দেখা গেছে।

মহামারী চলাকালে অনেকেই সংক্রমনের ভয়ে আক্রান্তদের পাশ্বে না গেলে জীবনের ঝুক নিয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়েছে। এমনকি অনেক পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য নিজেরা সুস্থ্য হয়ে প্লাজমা দিয়েছেন। এইবার করোনা কালিন সময় আক্রান্ত পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের নানা ভাবে পুলিশ সদর দপ্তর ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সহায়তা করা হয়েছে।  চিকিৎসা সেবা থেকে সকল ধরনের সহায়তা পুলিশ সদর দপ্তর দায়িত্ব পালন করেছেন।

মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে ২৬ মার্চ সেই কালো রাতে রাজারবাগ পুলিশ লাইন পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী প্রথম অস্ত্র উচিয়ে বীরদর্পে লড়াই করেছেন। সেই লড়াই রাজধানীর থেকে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছিল। সেই থেকে আজও বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী দেশের  ক্লান্তিকালিন সময় সকল সমর্থন নিয়ে  ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। এইবার করোনাকালীন সময়ে প্রথমে পুলিশ এগিয়ে মানুষের সেবায় নেমেছিল। এ নিয়ে নগরবাসী পুলিশের প্রশংসাও করেছিল। অনেক পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য মানবিক আচরণ করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 nagorikkhobor.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com