1. nagorikkhobor@gmail.com : admi2017 :
  2. shobozcomilla2011@gmail.com : Nagorik Khobor Khobor : Nagorik Khobor Khobor
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৮:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
২৪ ঘন্টায় মৃত্যু নেই, শনাক্ত ২৯ কুমিল্লায় মেয়র প্রার্থী সাক্কুর র‌য়ে‌ছে ২৪টি ফ্ল্যাটসহ অ‌ঢেল সম্পদ গণমাধ্যমকর্মী আইন প্রেস ফ্রিডমে চরম আঘাত সোনার দাম আকাশচুম্বী- প্রতি ভরির দাম ৮২ হাজার ৪৬৪ টাকা ইসির সংলাপে যাবে জাতীয় পার্টি জুনেই পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে মানুষ: কাদের খাদ্য সুরক্ষায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বাড়াতে বাংলাদেশ প্রস্তুত: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী গণকমিশনের কোনও ভিত্তি নেই: আসাদুজ্জামান খান কামাল গ্লোবাল ক্রাইসিস রেসপন্স গ্রুপ-এর প্রথম উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক – সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর ৪ প্রস্তাব নানা আয়োজনে পুনাকের ঈদ পুনর্মিলনী অনু‌ষ্ঠিত

পতিত জমিতে তিল চাষে স্বপ্ন বুনছে কু‌মিল্লার কৃষকরা

নাগ‌রিক খবর ডেস্ক:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৯ বার পঠিত

বুড়িচং উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামের বেলবাড়ি মাঠের পতিত জমিতে এ বছর তিল আবাদের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে উপজেলা কৃষি অফিস। বিনা উপকেন্দ্র কুমিল্লা থেকে সংগ্রহীত ৫ বিঘা বিনা তিল-২ প্রদর্শনী ও ৬ বিঘা বীজ সহায়তা, সরেজমিন গবেষণা বিভাগ, বারি থেকে সংগ্রহীত ২ বিঘা বারি তিল-৪ এর বীজ সহায়তা ও উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে হোমনা উপজেলা থেকে সংগ্রহীত ৪ বিঘা স্থানীয় জাতের তিল মিলে মোট ১৭ বিঘা জমিতে তিল অর্জিত হয়েছে।

প্রথমবারের মতো তিল চাষ করা কৃষক ওমর ফারুক বলেন, সরিষা চাষের পর আমাদের জমি গুলো পতিত থাকবে শুনে কৃষি অফিস থেকে আমাদের তিল চাষের পরামর্শ দেয়। তিল চাষের অভিজ্ঞতা না থাকায় অনেকেই শংকা প্রকাশ করেছিল। তবে বর্তমানে জমির পরিস্থিতি দেখে আমরা বিঘা প্রতি ১২-১৪ হাজার টাকা লাভের আশা করছি।

উপসহকারি কৃষি অফিসার মো. শাহেদ হোসেন বলেন, পাহাড়পুর গ্রামের বেলবাড়ি মাঠে বোরো আবাদ না হওয়ায় জমি পতিত থাকার কথা ছিল। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ্যের দিক নির্দেশনা পেয়ে কৃষকদের আগ্রহী উদ্বুদ্ধ করতে সভার আয়োজন করি। সভার আলোচনা সাপেক্ষ্যে বীজ ও সার ব্যবস্থা করে কৃষকদের মাঝে বিতরণ করা হয়। তিল চাষের বিষয়ে সকল পরামর্শ আমি প্রদান করছি।

এ বিষয়ে কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ বানিন রায় বলেন, সেচের অভাবে যে সকল মৌসুমি পতিত জমিতে খরিফ-১ মৌসুমে চাষাবাদ হয় না সেই জমি গুলোকে তিল চাষের আওতায় আনার পরিকল্পনা ছিল। সেই সাথে তিলের জাত হিসাবে বিনা তিল-২ ছড়িয়ে দিতে কাজ করছি। কৃষকদের মাঝে উচ্চ ফলনশীন নতুন জাতের সম্ভাবনার বিষয়টি তুলে ধরার মাধ্যমে বুড়িচং উপজেলায় তিল আবাদ বৃদ্ধি করতে চাই।

উপজেলা কৃষি অফিসার মোছা. আফরিণা আক্তার জানান, এ বছর তেল জাতীয় ফসলের মধ্যে সরিষার আবাদী জমি বৃদ্ধির পর বুড়িচং উপজেলায় তিল ফসলের জমিও বৃদ্ধি পেয়েছে। মাঠ পর্যায়ে গৃহীত পদক্ষেপ সমূহ ফলপ্রসূ হয়েছে। বুড়িচং এর কৃষিতে বৈচিত্র আনয়নে ও আরো সমৃদ্ধ করতে আমরা বদ্ধ পরিকর।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 nagorikkhobor.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com