1. nagorikkhobor@gmail.com : admi2017 :
  2. shobozcomilla2011@gmail.com : Nagorik Khobor Khobor : Nagorik Khobor Khobor
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৯:১৮ অপরাহ্ন

কু‌মিল্লার গোমতী হাসপাতা‌লে ডাক্তা‌রের অব‌হেলায় মারা গেল মেধাবী ছাত্র মে‌হেদী

অ‌মিত হাসান সুজন:
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩০ জুন, ২০২১
  • ৪১০ বার পঠিত

কুমিল্লা গোমতী হাসপাতা‌লে পাইল‌সের ভুল অপারেশনে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে পাশ করা মে‌হেদী হাসান না‌মের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গে‌ছে। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। মৃত্যুর জন্য চিকিৎসক জড়িত দাবি করে তার শাস্তি দাবি করেছেন অনেকে। মেহেদী হাসান কানাডার দ্য ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি অধ্যয়নরত ছিলেন।

মে‌হেদী ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার চান্দলা ইউনিয়নের সবুজপাড়া গ্রামের আলী আক্কাসের ছেলে। ঘটনার ৩ দিন পর বিষয়টি তদন্ত করতে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন।

জানা যায়, মেহেদী বুয়েট থেকে পাস করার পর বৃত্তি নিয়ে কানাডার দ্য ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি করছিলেন। গত বছরের মে মাসে তিনি দেশে আসেন। বাড়িতে থেকেই অনলাইনে গবেষণার বিষয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। পাইলসের সমস্যা থাকায় ঢাকায় অপারেশন করাতে চেয়েছিল পরিবার। কিন্তু রোববার (২০ জুন) পাইলসের সমস্যা নিয়ে মেহেদী হাসান নগরীর নজরুল অ্যাভিনিউ সড়কের গোমতী নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালের চিকিৎসক ও জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সার্জারি কনসালট্যান্ট ডা. আবু বকর সিদ্দিক ফয়সলের চেম্বারে যান। ডা. সিদ্দিক তাকে গোমতী হাসপাতালে অপারেশনের পরামর্শ দেন। সেখানে ওইদিনই মেহেদীর অপারেশন হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হলে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট চিকিৎসককে অবহিত করা হলেও তিনি কোনো পদক্ষেপ নেননি। এ কারণে সোমবার গভীর রাতে তাকে বাদুরতলা এলাকার সিডিপ্যাথ নামের একটি প্রাইভেট হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। ওই হাসপাতালে একই চিকিৎসক ও অন্য একজন সার্জন মিলে পুনরায় তার শরীরে অপারেশন করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার বিকালে মেহেদী মারা যান।

মেহেদীর ছোট ভাই কামরুল হাসান বলেন, ‘অপারেশনে প্রক্রিয়াগত ভুল ছিল। তাছাড়াও পেটে প্রচণ্ড ব্যথা শুরু হলে চিকিৎসক আমলে নেননি। চিকিৎসকের ভুলের কারণে আমি আমার মেধাবী ভাইকে হারিয়েছি। ডা. আবু বকর সিদ্দিক ফয়সল ভুল অপারেশনের বিষয়টি স্বীকার করে আমার মা ও আমাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে কান্নাকাটি ও অনুশোচনা প্রকাশ করেন। তাছাড়া হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তড়িঘড়ি করে হাসপাতাল থেকে লাশ বের করে অ্যাম্বুলেন্সে উঠিয়ে দেয়।’

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর ঘটনায় এ দেশে কয়জন চিকিৎসকের বিচার হয়েছে? কার কাছে বিচার চাইব? অভিযোগ তো তারাই তদন্ত করে, তাই লাশ নিয়ে মামলায় যাইনি। তদন্ত কমিটি তো হলো দেখি কি বিচার হয়?’

তদন্ত কমিটির প্রধান কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের প্রধান ডা. জাহাঙ্গীর হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘অফিসিয়ালি আমার হাতে এখনো কাগজপত্র আসেনি। কাগজ পাওয়ার পরই তদন্ত কাজ শুরু করব।’

সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসেন জানান, গণমাধ্যম মৃত্যুর বিষয়টি জেনে গোমতী হাসপাতাল পরিদর্শন করা হয়েছে এবং তদন্তের জন্য ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। রোববার থেকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।সুত্র:আকু।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2020 nagorikkhobor.Com
Theme Developed BY ThemesBazar.Com